প্রথম পাতা » জীবনযাপন » আম ও আমের পোকা

আম ও আমের পোকা

এই করোনা মানসিক স্বাস্থ্যের উপর কি বিরূপ প্রভাব ফেলেছে তা নিয়ে অনেক গবেষণা হয়েছে৷ সেসব গবেষণার ফলাফল আর কার্য-কারণ কি তা গবেষণা পত্র না পড়েও আঁচ করা যায়৷ বলা চলে মোটামুটি আমরা সবাই সেসব ফলাফলের ধারক বাহক৷ করোনা আমার মানসিক স্বাস্থ্যের উপর কি প্রভাব ফেলেছে তা আমি কিছুটা বুঝার চেষ্টা করলাম৷ পুরোপুরি বুঝার মতো উপায় নাই৷ সেই পুরাতন কথা৷ আমের পোকা কখনো আম চিনে না৷ আমিই আম, আমিই পোকা৷ বেড়াছ্যাড়া অবস্থা বলতে যা বুঝায় তাই হল মানবমন৷ আমার মন৷ রোগী আবার ডাক্তার হয় কিভাবে! তবে রোগী আর ডাক্তার একসাথে পাশাপাশি বা উপরে- নিচে থাকে এই দেহ আর মনের ভেতর৷ দেহতত্ত্ব জ্ঞান আমার নাই৷ আমার মনের একটা অংশ ডাক্তার হয়ে আরেকটা অংশের রোগ নির্ণয় করতে চাইছে-

১- মৃত্যু ভয় মাঝেমাঝেই আষ্টেপৃষ্টে ঘিরে ধরছে৷ সাইকোলজির ভাষায় এর একটা নাম আছে৷ Thanatos বা Fear of Death. চারদিকে অন্ধকার নেমে আসে সহসাই৷ সবকিছু ঠুনকো মনে হয়৷ আগে নিজেকে বলা যায় অমর মনে হতো৷ বয়স হয়তো কম তাই এরকম মনে হতো হয়তোবা৷ এখন মনে হয় অতি নশ্বর৷ যেকোন সময় ঠুস৷ অর্থহীনতা আর শূন্যতা ঝাকুনি দিয়ে যায় প্রায়শই৷

২- সামাজিক দক্ষতা বা সোশ্যাল স্কিল অনেক কমে গেছে বলে মনে হয় আমার৷ আগে যে ভালো ছিল তা নয়৷ আগের চেয়ে খারাপ হয়েছে৷ মানুষের সাথে ইন পারসন কথা বলতে গেলে মনে হয় যাই বলিনা কেন ভুল বলছি৷ রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে আর ঘুম থেকে উঠেই সেসব ভুলভাল কথা বলার আফসোস আর মনপীড়া চিত্তকে অস্থির করে তুলে৷

৩- অনলাইনে যোগাযোগ করতে করতে কি থেকে কি বলে ফেলি তার ঠিক ঠিকানা থাকে না৷ সামনে পেছনে চিন্তা না করে হুটহাট কথা বলে ফেলার প্রবণতা বেড়ে গেছে৷ না জেনে শুধু কথা বলার জন্যই কথা বলা হয়ে যাচ্ছে৷ ছোটখাটো ব্যাপারেও অযথা দুঃশ্চিন্তা আর হতাশা হচ্ছে৷

৪- চিন্তা ভাবনার স্বচ্ছতা নষ্ট হয়ে গেছে যেন৷ আমি বুঝাতে চেয়েছি এক আর বলে ফেলেছি আরেক৷ এরকম প্রায়শই হয়ে যাচ্ছে৷ শব্দে আর অর্থে মিল থাকছে না৷ ভুল বুঝাবুঝি হচ্ছে বেশি৷

৫- ইরিটেশন, রাগ, অল্পতেই গজগজ ভাব এসব ব্যাপার হচ্ছে৷ মাত্রা আর আধিক্য বেড়ে গেছে এসব জিনিসের৷

এসব রোগ নির্ণয় বলা চলে থার্মোমিটার দিয়ে ক্যান্সার রোগ ধরার মতো৷ মানে ডায়াগনোসিস ঠিকঠাকমতো হয়েছে তা ঠাওর করে বলা যাবেনা৷ ভাসাভাসা ব্যাপার৷ সার কম অসার বা পল বেশি৷

যাই হউক, এরকম লক্ষন, রোগ না হলেও, আরো অনেক আছে৷ এসবের কিছু কিছু করোনা পূর্ব অবস্থাতেও ছিল৷ করোনা আর করোনা সৃষ্ট পরিস্থিতিতে এসবের রূপ বিরূপ আকার ধারণ করেছে৷ সবাই বলে রোগ ধরতে পারলেই নাকি অর্ধেক রোগ সেরে যায়৷ আদতে ধরতে পেরেছি কিনা তা নিয়ে আবার আছে সংশয়৷ এই সংশয় ব্যাধিটাও বেড়ে গেছে৷ নিজের উপর নিজের সংশয়৷ আস্থা আসে না৷ এতো অনিশ্চয়তার ভেতরে আসবেই বা কি করে৷ একদিন সব ঠিক হয়ে যাবে৷ যাচ্ছেও হয়তোবা৷ আশাবাদ ছাড়া আর কোন বাদ নাই৷ বাকি সব বাদ থাক৷

  •  
  • 25
  •  
  •  
  •  
  •  

জীবনযাপন থেকে আরও পড়ুন

ইতল বিতলে আপনার লেখা আছে?আজই লিখুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *