প্রথম পাতা » জীবনযাপন » মানব জীবন পাখির মত হওক

মানব জীবন পাখির মত হওক

bird

মানুষ আমি পাখির মত মন কেন আমার। একটা গান অনেক দিন আগে শুনেছিলাম। পাখিদের জীবন কে খুবই ঈর্ষা লাগে আমার, যদি পাখি হতাম। হয়তো মানব জীবন থেকে মুক্তি পেতাম। কি এক অদ্ভূত ডানার শক্তি মাইলের পর মাইল উড়ে বেড়ায়। শীতকালে সাইবেরিয়া থেকে হাজার হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে পাখিরা আমাদের দেশে আসে। পাখিদের ভাষা বুঝি না বলে তাদের সম্পর্কে খুব বেশি জানা হয় না। তাদের কৃষ্টি কালচার, দর্শন, চিন্তা সম্পর্কে আমাদের খুব জানা নেই। মাঝে মাঝে আমার মনে হয় পাখিরা হচ্ছে আকাশের রহস্য।

পাখিরাষ্ট্র সমাজতান্ত্রিক বলে মনে হয়। সবাই একই পোশাক পড়ে, একই খাবার খায়, এদের কোন অসুর অসভ্য নেতা নেই। হিংসা, লোভ, ঈর্ষা, পরশ্রীকাতরতা সব মনুষ্য সমাজের জন্য।

একটা কাক মরে গেলে সকল কাক বিক্ষোভ করতে দেখেছি, তাদের সমাজে, আবেগ আছে, প্রেম আছে, প্রিয়জনের প্রতি ভালবাসা আছে। কোন এক কবি বলেছিলেন, “Where do all the birds go to die? সব পাখিরা মরতে কোথায় যাচ্ছে। আকাশের উপরে অন্য আকাশের কত দেশ সম্পর্কে তারা জানে। পাখিদের মৃতদেহ রাস্তায় ওভাবে পড়ে থাকতে দেখি না। তাহলে মরতে ওরা কোথায় যায়। আকাশের উপারে নিশ্চয় ই কোন গোপন দেশ আছে।

ওদের কোন ব্যাংক একাউন্ট নেই। পাঁচটা, দশটা ফ্ল্যাট নেই। আমাদের প্রয়োজন আর আরামের শেষ নেই। নিজেদের আরো আরাম আরো সুখ স্বাচ্ছন্দ্যের জন্য কত গবেষণা, কত চেষ্টা।

গত একশ বছরে মানুষের চেষ্টা ছিল মানুষ কিভাবে বসে বসে খাবে। আরো সুখ স্বাচ্ছন্দ্যে থাকবে। তার জন্য তারা বন কেটে উজার করেছে, পাখিদের বাড়ি ঘর ধবংস করেছে। নতুন নতুন কল কারখানা তৈরি করে কার্বন ডাই অক্সাইড বাড়িয়ে পৃথীবির তাপমাত্রা বৃদ্ধি করেছে। আত্মকেন্দ্রিক মানুষ নিজেদের সুখের জন্য কত কিছুই না করল। অথচ অন্য মানুষ ভাল থাকলে আমিও ভাল থাকি, জানালার পাশের গাছে উঠা কাঠবিড়ালিটা ভাল থাকলেও আমি ভাল থাকি এটাই বুঝল না। একে অন্য কে ধবংস করার জন্য কি মহা আয়োজন। রাসায়নিক অস্ত্র , জীবাণু অস্ত্র, জৈব রাসায়নিক অস্ত্র, ক্ষেপনাস্ত্র, আণবিক বোমা তৈরি শুধু অন্যকে ধবংস করার জন্য, শুধু অন্য কে ভয় দেখানোর জন্য। মানুষকে কত দ্রুত ও নিখুত ভাবে ধবংস করা যাবে এ নিয়ে অন্য এক মানব সন্তানের চলে নিরবিচ্ছিন্ন গবেষণা।

অন্য মানুষের ক্ষতির ভয় থেকে অন্য মানুষকে বাঁচাতে আমাদের রাষ্ট্র যন্ত্র পুলিশ বাহিনী, সেনা বাহিনী, আইন, শৃংখলা কত কিছু তৈরি করল। তাই আমরা আজ সবচেয়ে বেশি ভয় পাই মানুষকে। আমাদের সবচেয়ে বেশি নিরাপত্তা দরকার হয় অন্য মানুষের হাত থেকে বাঁচতে।

সৃষ্টিকর্তা যদি আর একটা জীবনের সুযোগ দিতেন তাহলে পাখি জীবন ই বেছে নিতাম। এক আকাশ থেকে অন্য আকাশে দল বেধে উড়ে উড়ে বেঁচে থাকার সুখ অনন্য। এই মানব জীবন পাখির মতই ভালবাসার আর বিশ্বাসের হোক।

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

জীবনযাপন থেকে আরও পড়ুন

মাসুদুল আলম
আমি অন্ধের দেশে চশমা বিক্রি করি।

ইতল বিতলে আপনার লেখা আছে?আজই লিখুন



Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *